বুলবুল » বুলবুল

পাতা তৈরিঅক্টোবর ১০, ২০২০; ১৮:৪৬
সম্পাদনাঅক্টোবর ১০, ২০২০, ২২:৫১
দৃষ্টিপাত

বুলবুল প্রথম সংস্করণ নবেম্বর ১৯২৮ (আশ্বিন বা কার্তিক1 এবং ১৩৩৫) প্রকাশিত হয়; তাতে ৪২টি গান অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। প্রকাশক গোপালদাস মজুমদার, ডি. এম. লাইব্রেরি, ৬১ কর্ণওয়ালিশ ষ্ট্রীট, কলিকাতা। পৃষ্ঠা ৪+৭০; মূল্য এক টাকা; রাজসংস্করণ পাঁচ সিকা।

১৩৩৫ চৈত্রে দ্বিতীয় সংস্করণে ‘নূতন গান’ বিভাগে শেষের সাতটি গান সংযোজিত হয়। ১৩৩৫ পৌষের সওগাতে অমলেন্দু দাশগুপ্ত ‘বুলবুলের কবি’ শিরোনামে ‘বুলবুল’-এর একটি আলোচনা লেখেন; এটা দ্বিতীয় সংস্করণের গোড়ায় সন্নিবেশিত হয়।

বুলবুলের তৃতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হয় ১৩৩৭ সালের ভাদ্র মাসে। বাংলা একাডেমি নজরুল রচনাবলীর জন্মশতবার্ষিকী সংস্করণে তৃতীয় সংস্করণের পাঠ অনুসৃত হয়েছে। এই সংস্করণের প্রকাশকও ডি. এম. লাইব্রেরির গোপালদাস মজুমদার। পৃষ্ঠা ৮+১৬+৮০; মূল্য এক টাকা চার আনা, রাজসংস্করণ দেড় টাকা।

বাগিচায় বুলবুলি তুই— ১৩৩৩ মাঘের কল্লোলে প্রকাশিত হয়। রচনার স্থান ও তারিখ —কৃষ্ণনগর, ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৩৩৩।

আমারে চোখ ইশারায়— ১৩৩৩ চৈত্রের কল্লোলে প্রকাশিত হয়। কল্লোল হতে ১৩৩৪ আষাঢ়ের সওগাতে উদ্ধৃত হয়।

বসিয়া বিজনে কেন একা মনে—১৩৩৩ ফাল্গুনের এবং ভুলি কেমনে আজো যে মনে— ১৩৩৪ জ্যৈষ্ঠের কল্লোলে প্রকাশিত হয়।

কেন কাঁদে পরাণ কি বেদনায়— ১৩৩৪ শ্রাবণের নওরোজে এবং মৃদুল বায়ে বকুল-ছায়ে— ১৩৩৩ মাঘের কল্লোলে প্রকাশিত হয়।

কে বিদেশী বন-উদাসী—১৩৩৪ পৌষের এবং এর কবিকৃত স্বরলিপি ১৩৩৪ চৈত্রের সওগাতে প্রকাশিত হয়।

করুণ কেন অরুণ আঁখি— এবং এত জল ও-কাজল চোখে— ১৩৩৪ জ্যৈষ্ঠের বঙ্গবাণীতে প্রকাশিত হয়। এ দুটি গান কবিকৃত স্বরলিপিসহ যথাক্রমে ১৩৩৪ আষাঢ় ও আশ্বিনের নওরোজে বের হয়।

আসে বসন্ত ফুলবনে— ১৩৩৩ পৌষের সওগাতে প্রকাশতি হয়। রচনার স্থান ও তারিখ— কৃষ্ণনগর, ২৮ অগ্রহায়ণ ৩৩। পাদটীকায় মুদ্রিত আছে—’বিখ্যাত উর্দু গজল ‘কিসকে খেরামে নাজ্‌নে কবর্‌মে দিল্ হিলা দিয়া’—সুর।

দুরন্ত বায়ু পুরবঁইয়া— ১৩৩৩ ফাল্গুনের সওগাতে প্রকাশিত হয়। রচনার স্থান ও তারিখ— কৃষ্ণনগর, ১ পৌষ ১৩৩৩। পাদটীকায় মুদ্রিত আছে— উর্দু গজল : ‘নাজ্‌ভি হোতা রহে হোতি রহে বে-দাদ্‌ভি’—সুর।

চেয়ো না সুনয়না— ১৩৩৪ অগ্রহায়ণের সওগাতে এবং নিশি ভোর হল জাগিয়া— ১৩৩৪ চৈত্রের প্রগতিতে প্রকাশিত হয়।

এ বাসি বাসসের আসিলে কে গো— ১৩৩৫ বৈশাখের প্রগতিতে কবিকৃত স্বরলিপিসহ প্রকাশিত হয়।

কেন দিলে এ কাঁটা— ১৩৩৪ ভাদ্রের নওরোজে প্রকাশিত হয়।

সখি বলো বঁধুয়ারে নিরজনে— ১৩৩৪ চৈত্রের সওগাতে প্রকাশিত হয়।

নহে নেহে প্রিয় এ নয় আঁখিজল— ১৩৩৫ জ্যৈষ্ঠের এবং পরদেশি বঁধুয়া এলে কি এতদিনে— ১৩৩৪ চৈত্রের কালিকলমে প্রকাশিত হয়।

আসিলে এ ভাঙা ঘরে—১৩৩৪ শ্রাবণের নওরোজে কবিকৃত স্বরলিপিসহ প্রকাশিত হয়।

আজি দোল-পূর্ণিমাতে ১৩৩৪ চৈত্রের এবং আজি এ কুসুম-হার— ১৩৩৫ আষাঢ়ের কল্লোলে প্রকাশিত হয়।

গরজে গম্ভীর গগনে কম্বু, হাজার তারার হার হয়ে গো, অধীর অম্বরে গুরু গরজনে, চরণ ফেলি গো মরণ-ছন্দে এবং নমো হে নমো যন্ত্রপাতি— ১৩৩৪ শ্রাবণের নওরোজে ‘সারা ব্রিজ’ (সেতুবন্ধ) নাটিকার গানরূপে প্রকাশিত হয়।

ঝরে ঝরঝর কোন গভীর গোপন ধারা, হৃদয় যত নিষেধ হানে, শুকাল মিলন-মালা এবং স্মরণ-পারের ওগো প্রিয়— ১৩৩৪ আষাঢ়ের নওরোজে ঝিলিমিলি নামক একাঙ্কিকার গানরূপে প্রকাশিত হয়।

গহীন রাতে ঘুম কে এলে ভাঙাতে— ১৩৩৫ ভাদ্রে ধূপছায়ায় ও সংওগাতে প্রকাশিত হয়।

কোন্ শরতে পূর্ণিমা-চাঁদ আসিলে এ ধরাতলে— ৩১শে ভাদ্র ১৩৩৫ মুতাবিক ১৬ই সেপ্টেম্বর ১৯২৮ তারিখে কলিকাতা ইউনিভার্সিটি ইন্‌স্টিটিউট হলে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের (জন্ম : ৩১শে ভাদ্র ১২৮২ মুতাবিক ১৫ই সেপ্টেম্বর ১৮৭৬) জন্মজয়ন্তী উৎসবে শ্রীমতী সাহানা দেবী কর্তৃক গীত এবং ১৩৩৫ আশ্বিনের কল্লোলে প্রকাশিত হয়।

কার নিকুঞ্জে রাত কাটায়ে— ১৩৩৪ জ্যৈষ্ঠের সওগাতে প্রকাশিত হয়। পাদটীকায় মুদ্রিত আছে— উর্দু গজল ‘নাজ্‌ ভি হোতা রহে হোতি রহে বেদাদ্ ভি’—সুর।’

কেন আন ফুল-ডোর— রচনার স্থান ও তারিখ : নিমতিতা, মুর্শিদাবাদ, ১৯শে অগ্রহায়ণ ১৩৩৫— এটি ১৩৩৫ মাঘের এবং কেমনে রাখি আঁখি-বারি চাপিয়া— ১৩৩৫ ফাল্গুনের সওগাতে প্রকাশিত হয়।2

টীকা

  1. বাংলা একাডেমি প্রকাশিত নজরুল রচনাবলী, জন্মশতবর্ষ সংস্করণ দ্বিতীয় খণ্ডের ৪৪৯ পৃষ্টায় আশ্বিন ৪৫১ পৃষ্ঠায় (পুনশ্চ-এ) কার্তিক লেখা হয়েছে।
  2. বাংলা একাডেমি, নজরুল রচনাবলী জন্মশতবার্ষিকী সংস্করণের দ্বিতীয় খণ্ডের গ্রন্থপরিচয় অবলম্বনে লিখিত।
গ্রন্থাবলী
মতামত জানান